• ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সিলেটে হাসপাতালে বোনকে দেখতে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে যুবকের প্রাণহানি

sylhetnewspaper.com
প্রকাশিত জুন ২০, ২০২৪
সিলেটে হাসপাতালে বোনকে দেখতে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে যুবকের প্রাণহানি

সিলেট নগরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বোনকে দেখতে সিলেটের গোলাপগঞ্জ থেকে সিলেট আসার পথে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে প্রাণ গেছে আবুল হাসান (২৮) নামে এক যুবকের। অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা তাকে অপহরণ করার পর নগরের আম্বরখানা এলাকার একটি ভবনের ছাতে আটকে মুক্তিপণ দাবি ও মারধর করে। পরে রাতে একটি বেসরকারি হাসপাতালে মারা যান তিনি। এ ঘটনায় তাঁর এক আত্মীয় আহত হন।

আবুল হাসান গোলাপগঞ্জ উপজেলার ভাদেশ্বর এলাকার পূর্বভাগ কলাশহর গ্রারেম মৃত ইলিয়াস আলীর ছেলে। তিনি যুক্তরাষ্ট্রে যাবার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তিনি গোলাপগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী ও প্রবাসী পরিবারের সন্তান।

নিহতের ছোট বোনের স্বামী মোস্তফা আকমল জানান, তার স্ত্রীকে দেখতে সমন্ধি আবুল হাসান মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় গোলাপগঞ্জের ভাদেশ্বর থেকে সিলেটের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। সঙ্গে তার এক আত্মীয় ও এক যাত্রী ছিলেন। কদমতলী ওভারব্রিজ এলাকায় আরেক যাত্রী সিএনজিতে ওঠেন। এরপর তারা আর কিছু বলতে পারেননি। জ্ঞান ফিরলে তারা সিলেট নগরের আম্বরখানা এলাকার একটি ভবনের ছাদের ওপর নিজেদের দেখতে পান। এ সময় কয়েক যুবক তাদের মারধর করে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। তাদের কাছ থেকে তারা মোবাইল ফোন ও ৮ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।

হাসানের সঙ্গে থাকা ওই আত্মীয় আহত অবস্থায় নিচে নেমে স্থানীয়দের ঘটনাটি জানান। পরে হাসানকে প্রথমে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে একটি বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। রাত ১টার দিকে হাসান মারা যান।

বুধবার সকালে মরদেহ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু দাফনের আগে বুধবার বিকেলে আবার ময়নাতদন্তের জন্য ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে যান স্বজনরা।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈন উদ্দিন সিপন জানান, পুলিশকে না জানিয়ে মরদেহ বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। দাফনের আগে আবার লাশটি সিলেট নিয়ে আসা হয়। মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন