• ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৯ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সিলেট-২ আসনে বিপুল ভোটে নির্বাচিত শফিকুর রহমান চৌধুরী

sylhetnewspaper.com
প্রকাশিত জানুয়ারি ৮, ২০২৪
সিলেট-২ আসনে বিপুল ভোটে নির্বাচিত শফিকুর রহমান চৌধুরী

মো. আবুল কাশেম, বিশ্বনাথ প্রতিনিধি : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-২ আসনে নিকটতম প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীকে ৬২ হাজার ২২৭ ভোটের ব্যবধানী পরাজিত করে দ্বিতীয় বারের মতো বেসরকারী ভাবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও স্থানীয় সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী। এর ফলে দীর্ঘ ১০ বছর পর কাঙ্খিত উন্নয়নের আবারও নির্বাচনী আসনের জনসাধারণ নৌকা প্রতীকের এমপি পেলেন।

সিলেট-২ (বিশ্বনাথ-ওসমানীনগর) আসনে রোববার (৭ই জানুয়ারী) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত নির্বাচনী আসনের ১২৭টি (বিশ্বনাথ উপজেলায় ৭৪টি ও ওসমানীনগর উপজেলায় ৫৩টি) ভোট কেন্দ্রে ৩ লাখ ৪৪ হাজার ৭২৯ জন (পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৭৬ হাজার ১৪৭ জন ও নারী ভোটার ১ লাখ ৬৮ হাজার ৫৮২ জন) ভোটারের মধ্যে ১ লাখ ৬ হাজার ৮৪৭ জন ভোটার নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে আগামী ৫ বছরের জন্য ‘সংসদ সদস্য’ হিসেবে আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরীর হিসেবে নির্বাচিত করেছেন।
নির্বাচনে ‘নৌকা’ প্রতীকে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী পেয়েছেন ৭৮ হাজার ৩৮৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি ‘ট্রাক’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিশ্বনাথ পৌর মেয়র মুহিবুর রহমান পেয়েছেন ১৬ হাজার ৬৬১ ভোট। শফিক-মুহিব এছাড়াও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতাকারী অপর প্রার্থীদের মধ্যে ‘লাঙ্গল’ প্রতীকে জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী এহিয়া ৬ হাজার ৮৭৪ ভোট, ‘উদিয়মান সূর্য্য’ প্রতীকে বর্তমান এমপি ও গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি মোকাব্বির খান ১ হাজার ৯২২ ভোট,সোনালী আঁশ’ প্রতীকে আব্দুর রব মল্লিক ৯৪৪ ভোট,আমপ্রতীকে ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মনোয়ার হোসেন ২৫৩ ভোট এবং ‘ডাব’ প্রতীকে কংগ্রেস’র মো: জহির ১৮৫ ভোট পেয়েছেন।

বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়াই অবাদ, সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষভাবে সম্পন্ন হয়েছে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহন প্রক্রিয়া। যদিও দুপুর ২টার দিকে নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধে জাল ভোট প্রয়োগ ও নিজের এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ এনে ওসমানীনগর উপজেলার গোয়ালাবাজারে একটিরেস্টুরেন্টে একসাথে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন‘মোকাব্বির খান,ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী এহিয়া মুহিবুর রহমান, আব্দুর রব মল্লিক’প্রার্থী।

নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতি ছিল অন্য যেকোন নির্বাচনের তুলনায় কম। তবে সকালের চেয়ে বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষনীয়। ভোট গ্রহন শেষে গনণার পর নৌকার বিজয়ের খবর আসার সাথে সাথে নির্বাচনী এলাকায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দিপনা দেখা দেয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন