• ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৭ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সুনামগঞ্জ-৫ আসনে নৌকা বনাম ঈগলের লড়াই

sylhetnewspaper.com
প্রকাশিত ডিসেম্বর ৩০, ২০২৩
সুনামগঞ্জ-৫ আসনে নৌকা বনাম ঈগলের লড়াই

ছাতকে জমে উঠেছে ভোট উৎসব। ভোট আনন্দে মেতে উঠেছে এখানের নতুন ভোটারসহ সর্বস্থরের জনগন। কার ভোটের পাল্লা ভারী-এ নিয়ে চলছে সর্বত্র আলোচনা-সমালোচনা।

দিনক্ষণ যতই ঘনিয়ে আসছে ততই ভোটের সমীকরনে যুক্ত হচ্ছে নুতন মাত্রা। ভোট যুদ্ধে লড়াই হবে দ্বি-মুখী বিষয়টি প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেছে। তাই ভোটাররাও প্রায় দু’ভাগে বিভক্ত বলা যায়।

নির্বাচনে অগ্রগন্য ওই দু’প্রার্থীকে নিয়েই হিসেব-নিকেশে বসেছে ভোটাররা। এখানে মুলত জেলা আওয়ামীলীগের দু’ নেতার মধ্যেই ভোটের লড়াই হওয়ায় এখানের দলীয় নেতা-কর্মীরাও দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে প্রচারনায় নেমেছেন। বিভক্ত আওয়ামীলীগ নেতারাও চালাচ্ছেন কৌশলী প্রচারনা।

নৌকার কর্মী-সমর্থকরা বলছেন, দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা সুনামগঞ্জ-৫ আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে দলীয় নমিনেশন দিয়ে নৌকা তোলে দিয়েছেন মুহিবুর রহমান মানিকের হাতে। আর স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা বলছেন, নেত্রী পারমিশন দিয়ে নির্বাচনী মাঠে লড়াই করার নির্দেশ দিয়েছেন জেলা আওয়ামীলীগ নেতা শামীম আহমদ চৌধুরীকে।

তাই লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড। জনপ্রিয়তার দৌড়ে যে এগিয়ে যাবে তাকেই নেত্রী সাদরে গ্রহন করবেন বলে তারা মনে করেন এবং করছেন। এ থিমকে সামনে রেখে নৌকা ও ঈগলের প্রচারনায় উত্তাপ ছড়াচ্ছে ভোটের মাঠে। এখানে মুলত আওয়ামীলীগ বনাম আওয়ামীলীগের লড়াই হাড্ডাহাড্ডি। তাই হাড্ডা-হাড্ডি প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস পাচ্ছেন সাধারণ ভোটাররা। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ছাতক-দোয়ারাবাজার নিয়ে সংসদীয় সুনামগঞ্জ-৫ আসনে স্বতন্ত্র সহ বিভিন্ন দলের ৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছেন।

প্রার্থীরা হলেন আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মুহিবুর রহমান মানিক (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী শামীম আহমদ চৌধুরী (ঈগল), জাতীয় পার্টি (জেপি)’র প্রার্থী এড. মনির উদ্দিন (বাইসাইকেল), কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ প্রার্থী হাজী আব্দুল জলিল (গামছা), বাংলাদেশ ন্যাশনালিষ্ট পার্টি বিএনএফ’র প্রার্থী আশরাফ হোসেন (টেলিভিশন), জাতীয় পার্টির প্রার্থী এড. নাজমুল হুদা হিমেল (লাঙ্গল), গণফোরাম প্রার্থী আইয়ূব করম আলী (উদীয়মান সূর্য্য), বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি বিএসপি প্রার্থী আবু সালেহ (একতারা) এবং ন্যাশনাল পিপলস পার্টি এনপিপির প্রার্থী থেকে আজিজুল হক (আম)।

প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৯ প্রার্থী হলেও প্রচারনায় সড়গরম রয়েছেন নৌকা ও ঈগলের প্রার্থী। অন্যান্য প্রার্থীর রশিতে ঝুলানো পোষ্টার ছাড়া প্রার্থীদের তেমন বেশী চোখে পড়ছে না। নৌকার পক্ষে প্রচারনায় নেমেছে উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, প্যানেল মেয়র সহ বেশ কয়েকজন ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যবৃন্দ। অপর দিকে ঈগল পাখির সমর্থনে প্রচারনায় নেমেছেন পৌর মেয়র, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান, কাউন্সিরর সহ উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারবৃন্দ। এ ছাড়া এখানের বিবদমান দু’গ্রুপের আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা প্রচারে নেমেছেন স্ব-স্ব প্রার্থীর পক্ষে। নির্বাচনের সময়ক্ষণ ঘনিয়ে আসার সাথে-সাথে নৌকা ও ঈগলের মধ্যে লড়াই ক্রমেই দ্বি-মুখী হয়ে উঠছে। নির্বাচন বিশ্লেষকদের মতে ওই দু’ প্রার্থীর মধ্যেই ফলাফল নির্ধারিত হবে।

এদিকে অবশিষ্ট সময় কাজে লাগাতে তৈরী করা নির্বাচনী ওয়ার্ক রুটিন অনুযায়ী প্রার্থীরা ছুটছেন ভোটারদের দোরগোড়ায়। দিচ্ছেন বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি। একে অন্যের দোষ-ত্রুটি সাবলিল ভাষায় তুলে ধরতেও ভুল করছেন প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দু’ প্রার্থী। ভোটের পাল্লা ভারী করতে সর্ব শক্তি নিয়োগ করে প্রচারনা চালাচ্ছেন প্রার্থী ও কর্মী সমর্থকরা। সভা, সমাবেশে, মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা, মিছিল ও মাইকে গানে-গানে প্রচারনায় ছাতক জুড়ে বিরাজ করছে এক নির্বাচনী উৎসবের আমেজ। এখন পর্যন্ত নির্বাচনী পরিবেশ সুন্দর ও উৎসব মুখর বলে দাবী করছেন সাধারন মানুষ। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এখন পর্যন্ত কোন সংঘর্ষ, সহিংশতা বা অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। নির্বাচনকে উৎসবে রূপ দিতে প্রার্থীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন এখানের সুশিল সমাজ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •