• ১লা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৭ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২রা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি

খাদিমপাড়ায় পিচ্চি আমিনুরের ত্রাসের রাজত্ব : বিঘ্নিত জননিরাপত্তা

sylhetnewspaper.com
প্রকাশিত মে ২২, ২০২২
খাদিমপাড়ায় পিচ্চি আমিনুরের ত্রাসের রাজত্ব : বিঘ্নিত জননিরাপত্তা

সিলেট মেট্রোসিটি’র খাদিমপাড়ায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে রেখেছে সন্ত্রাসী আমিনুর রহমান ওরফে পিচ্চি আমিনুর ওরফে আমিনুল ইসলাম। মাদক মামলার পলাতক আসামী আমিনুর প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং নানা অপরাধ অপকর্ম চালিয়ে জননিরাপত্তায় বিঘ্ন ঘটাচ্ছে। সম্প্রতি সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি) কমিশনার বরাবরে দেওয়া এক আবেদনে এমন অভিযােগ করা হয়েছে।

অভিযােগে প্রকাশ, সিলেট সদর এসএমপি শাহপরাণ থানাধীন আল-বারাকা আবাসিক এলাকার হায়দার আলী ওরফে হায়দার মিয়ার পুত্র চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী, ভূমিখেকো, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, জ্বালাও-পােড়াও এবং বিস্ফোরক দ্রব্যাদিসহ বিভিন্ন মামলার আসামী। রকমফের অপরাধ অপকর্মের অভিযােগে তার বিরুদ্ধে আদালতে ৮টি মামলা বিচারাধীন এবং মাদকদ্রব্য আইনের একটি মামলায় সে পলাতক রয়েছে। পলাতক থেকেও সে তার, সন্ত্রাসী কার্যকলাপ ও জননির্যাতন অব্যাহত রেখেছে।

অজ্ঞাত কারণে পুলিশ তাকে গ্রেফতার না করায় দিন দিন সে আরাে বেপরােয়া হয়ে ওঠেছে। অভিযােগে উল্লেখ করা হয়, এ বছরের ১৬ ফেব্রুয়ারি সিলেট কোতােয়ালি মডেল থানাধীন তালতলাস্থ বাংলাদেশ ব্যাংকের সামন থেকে ৫৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটের চালানসহ প্রনব নামের এক মাদকব্যাবসায়ীকে গ্রেফতার করে লামাবাজার ফাঁড়ি পুলিশ।

এ সময় মাদক চোরাচালানী আমিনুর সহ অন্যরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় সিলেট কোতােয়ালি মডেল থানায় দায়ের করা মাদক মামলায় (নং-৩৯(২)২২} আমিনুরকে এজাহারভুক্ত আসামী করা হয়,যার জিআরনং-১৪৩/২২। এ মামলায় আমিনুর ওরফে পিচ্চি আমিনর আজো পলাতক রয়েছে। এর আগে ২০১৩ সালের ১১ নভেম্বর আমিনুর তার সন্ত্রাসী চক্র নিয়ে সিলেটে-তামাবিল রােডের পীরের বাজারে একাধিক ককটেল বােমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে। গাড়ি ভাংচুর করে।

এ ঘটনায় তার ও তার সহযােগী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে এসএমপির শাহপরাণ থানায় ১২(১১)১৩ নং মামলা রুজু করা হয়, যার জিআর নং-১৫২/১৩ তদন্তে এ মামলায় তার বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়।

আমিনুর ও তার সহযােগী সন্ত্রাসীরা ২০০৯ সালের ১ ডিসেম্বর শাহপরাণ থানাধীন আল-বারাকা আবাসিক এলাকায় সিলেট জজ কোর্টের নাজিরসহ আদালত প্রেরিত ফোর্সের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এ ঘটনায় সিলেট জজ কোর্টের নাজির মােঃ নিজাম উদ্দিন আহমেদ বাদী হয়ে আমিনুর ও তার সহযােগী ১৮ জনের বিরুদ্ধে দ্রুতবিচার আইনে একটি মামলা করেন। যা এসএমপির শাহপরাণ থানার মামলা নং ০৫(১২)০৯ এবং (জিআর-১৬৬/০৯) এ মামলায়ও আমিনরা ও তার সহযােগীদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়। আমিনুর ওরফে আমিনল ও তার সহযােগী সন্ত্রাসীরা ২০১২ সালর ১৫ অক্টোবর খদিমপাড়া বহর কলোনীর ফাতেমা বেগমের বসত ঘরে হামলা ভাংচুর, লুটপাট ও শ্লীলতাহানির মত ঘটনা ঘটায়।

এ ঘটনায় আমিনুর ওরফে আমিনুলের বিরুদ্ধে এসএমপির শাহপরাণ থানায় ০৭(১০) ১২ নং মামলা, (জিআর-১৬১/১২) দায়ের করা হয়। আমিনুর ও তার সহযােগী সন্ত্রাসীরা এর আগে ২০০৪ সালের ২ জুলাই খাদিমপাড়া বহর মৌজায় জনৈক ফেরদৌসী রহমানের ভূমি জবরদখলের উদ্ধেশ্য সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এ ঘটনায় তৎকালীন সিলেট কোয়ালি থানায় ১৩(৭) ০৪ নং (জিআর- ৫৬১/০৪) মামলা রুজু করা হয়। আমিনর ওরফে পিচ্ছি আমিনরের বিরুদ্ধে ১৬.১০,২০২১ খ্রি. তারিখে শাহপরাণ থানায় আরাে একটি নন এফআইআর-১৭৫/২১ নং মামলা রুজু করা হয়।

এতাে সব মামলার আসামী আমিনুর ওরফে পিচ্ছি • আমিনুর বর্তমানে মাদক মামলায় পলাতক হয়েও দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছে। অজ্ঞাত কারণে তাকে গ্রেফতার করছে পুলিশ। ফলে সে ও তার সন্ত্রাসী চক্র এলাকার জনরািপত্তায় চরম বিঘ্ন ঘটাচ্ছে। তাই এলাকাবাসী অবিলম্বে সন্ত্রাসী পিচ্ছি আমিনুরকে গ্রেফতার ও তার বিরুদ্ধে প্রতিরােধমূলক আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানিয়েছেন। সৌজন্য – সোনালী সিলেট

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •