• ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৬শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

কোটি টাকা আত্মসাতের মামলা তুলে নিতে বাদীকে প্রাণনাশের হুমকি

sylhetnewspaper.com
প্রকাশিত নভেম্বর ১০, ২০২১
কোটি টাকা আত্মসাতের মামলা তুলে নিতে বাদীকে প্রাণনাশের হুমকি

দুই লন্ডন প্রবাসীর বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করে উল্টো ভয়ে আছেন আরেক লন্ডন প্রবাসী। ওই লন্ডন প্রবাসীর পক্ষে মামলা করে এখন হুমকি পাচ্ছেন তার ম্যানেজার ও খালাত ভাই। বিষয়টি জানিয়ে থানায় জিডিও করেছেন প্রবাসীর খালাত ভাই ফজলুল ইসলাম ফজলাই।

মামলাসূত্রে জানা গেছে, পূর্ব পরিচিত হিসেবে যুক্তরাজ্য প্রবাসী ইব্রাহীম আলীকে ঢাকার উত্তরা এলাকায় একটি ফ্ল্যাট কেনার প্রস্তাব দেন গোলাপগঞ্জের নালিউড়ি গ্রামের মোক্তাদির আলীর ছেলে মাহমুদ ও দক্ষিণ ভাগ গ্রামের মৃত ফরমুজ আলীর ছেলে আবুল কালাম। যুক্তরাজ্য প্রবাসী মাহমুদ ও কালামকে দেড় কোটি টাকা দেন প্রবাসী ইব্রাহীম আলী।

কিন্তু ৭-৮ বছর পেরিয়ে গেলেও প্রবাসী ইব্রাহীম আলীকে ফ্ল্যাট বুঝিয়ে দেননি তারা। উল্টো টালবাহানা করতে থাকেন। বাধ্য হয়ে প্রবাসী ইব্রাহীমের পক্ষে ২০১৯ সালে সিলেটের আদালতে একটি প্রতারণার মামলা দায়ের করেন তার খালাত ভাই ফজলুল ইসলাম ফজলাই। মামলার আসামি হিসেবে নাম উল্লেখ করা হয় মাহমুদ হোসেন ও আবুল কালামের। বর্তমানে মামলাটি বিচারাধীন আছে। বুধবার এই মামলার শুনানী হবে। এর আগে এ বছরের ১৪ অক্টোবর সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালতে মামলার শুনানির দিন ছিলো।

ওই দিন আদালতে হাজির হন বাদি ফজলাই ও আসামিরা। হাজিরা শেষে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আদালতের নিচতলায় ফজলাইয়ের পথরোধ করেন আসামি মাহমুদ, কালামসহ বেশ কয়েকজন। এ সময় তারা ফজলাইকে মামলা তুলে নিতে বলেন।

নতুবা ফজলাই ও প্রবাসী ইব্রাহীম আলীকে প্রাণে হত্যারও হুমকি দেন। নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতে থাকা ফজলাই তার খালাতো ভাই ইব্রাহীম আলীর সাথে পরামর্শ করে ১৬ অক্টোবর কোতোয়ালি থানায় আসামিদের নাম উল্লেখ করে সাধারণ ডায়েরি দায়ের করেন।

প্রবাসী ইব্রাহীম আলী জানান, দুই প্রতারক কালাম ও মাহমুদ আমার অনেক ক্ষতি করেছে। আমরা মামলা করেছি। আশা করছি, ন্যায়বিচার পাবো। ইব্রাহীম আলী বলেন, এভাবে হয়রানী করা হলে দেশে বিনিয়োগের আগ্রহ হারাবেন প্রবাসীরা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •