• ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৬ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

এয়ারপোর্ট থানা পুলিশের অভিযানে ৩ ছিনতাইকারী গ্রেফতার

sylhetnewspaper.com
প্রকাশিত আগস্ট ২১, ২০২১
এয়ারপোর্ট থানা পুলিশের অভিযানে ৩ ছিনতাইকারী গ্রেফতার

শুক্রবার দিবাগত (২১ আগস্ট) রাত পৌনে ১টার দিকে আম্বরখানা হোটেল পলাশের সামনে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ার্ডবয় মো.আশিক মিয়া(৩৮)স্ত্রীকে নিয়ে বাসায় যাওয়ার পথে ছিনতাইয়ের শিকার হন আশিক ও তার স্ত্রী। এ ঘটনায় ৩ ছিনতাইকারীকে আটকের পর কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে আশিক মিয়া তার স্ত্রী তাম্মি আক্তার ইমাকে নিয়ে ওসমানী হাসপাতাল হতে বের হয়ে আম্বরখানা বড়বাজারস্থ নিজ বাসায় যাওয়ার উদ্দেশে রিকশাযোগে রওয়ানা হন। রাত পৌনে ১টার দিকে আম্বরখানার হোটেল পলাশের সামনে আসামাত্র ৩ ছিনতাইকারী তাদের পথ আটকে চাকু দেখিয়ে আশিক মিয়ার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন, নগদ ১০ হাজার টাকা ও তার স্ত্রীর ইমার ব্যানিটি ব্যাগ টান মেরে নিয়ে দৌঁড় দেয়। ওই ব্যাগে আরও ১ হাজার ৬ শ টাকা ছিলো।

এসময় তাদের চিৎকারে আম্বরখানায় টহলরত এয়ারপোর্ট থানার একদল পুলিশ ধাওয়া করে ৩ ছিনতাইকারীকে আটক করে।
আটককৃতরা হচ্ছে- হবিগঞ্জ জেলার সদর থানার পৈল (ঘরেরপাড় মোল্লাবাড়ী) গ্রামের মৃত সাজিদ মিয়ার ছেলে মো. মোহন মিয়া (২০), সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার উত্তর আকাখাজনা গ্রামের মৃত কুদ্দুছ মিয়ার ছেলে খায়রুল ইসলাম (২১) ও সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার আদোয়া বড়কাপন গ্রামের মো. শামছুল আলমের ছেলে রেজাউল করিম রেজা (২২)।

আটকের সময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাইয়ের টাকা ও মোবাইল ফোন ও চাকু উদ্ধার এবং ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত সিএনজি অটোরিকশা জব্দ করে পুলিশ।
পরবর্তীতে তাদের বিরুদ্ধে এয়ারপোর্ট থানায় মামলা (নং-২৮) দায়ের করা হয়েছে।
শনিবার (২১ আগস্ট) আদালতের মাধ্যমে ৩ ছিনতাইকারীকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন খান মুহাম্মদ মাইনুল জাকির।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন