• ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৬শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

এয়ারপোর্ট থানা পুলিশের অভিযানে ২ টি ভারতীয় মোটরসাইকেলসহ আটক ২

sylhetnewspaper.com
প্রকাশিত আগস্ট ৮, ২০২১
এয়ারপোর্ট থানা পুলিশের অভিযানে ২ টি ভারতীয় মোটরসাইকেলসহ আটক ২

সিলেটের এয়ারপোর্ট থানা পুলিশের অভিযানে সরকারী শুল্ক ফাঁকি দিয়ে ভারতীয় YAMAHA R-15 ও TVS Stryker মোটরসাইকেল বাংলাদেশে এনে বিক্রয়কালে দু’টি মোটরসাইকেলসহ দু’জনকে গ্রেফতার করেছে এসএমপি’র এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ। শনিবার ৭ আগস্ট মধ্যরাত ২ টায় এয়ারপোর্ট থানাধীন আলীবাহার চা-বাগানের মসজিদের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হল- এসএমপির এয়ারপোর্ট থানাধীন উমদাপাড়ার মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে আরিছ আহমদ (২৬), জালালাবাদ থানাধীন গোয়াবাড়ীর কুচারপাড়ার মোহনা ব্লক-ডি-৩৩-এর আব্দুল জব্বারের ছেলে ইমন আহমেদ (৩০)।

এসময় আটককৃতদের সাথে থাকা অপর সঙ্গীরা কানিশাইলের প্রত্যাশা আ/এ, ২নং গলির নাছির মিয়ার ছেলে আব্দুল মোতালিব রনি (২০), উমদাপাড়ার কালা মিয়ার ছেলে সাহেদ (২৮), জালালাবাদ থানার হাওলদার পাড়ার বাসা নং-৯৫-এর মৃত করিম মিয়া সাদ্দাম আহমদ লিটু (২৮), টিলাগড়ের ময়না মিয়ার ছেলে মাসুম (২০) সহ অজ্ঞাতনামান ২/৩ জন দৌড়ে পালিয়ে যায়।

পুলিশ জানায়, এয়ারপোর্ট থানার সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. মফিজ উদ্দিন এবং অফিসার ইনচার্জ খান মুহাম্মদ মাইনুল জাকির এবং পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জসিম উদ্দিন এর নির্দেশনায় এসআই মো. মফিজুর রহমানসহ সঙ্গীয় অফিসার এএসআই জার্নেল রানা তালুকদার, এএসআই তরনী কান্ত দাস, কনস্টেবল সোহাগ, কনস্টেবল মকবুল হোসেন অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযান কালে ভারত থেকে অবৈধ ভাবে সরকারী শুল্ক ফাঁকি দিয়া ভারতীয় মোটরসাইকেল বাংলাদেশে এনে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে এয়ারপোর্ট থানাধীন আলীবাহার চা-বাগানের মসজিদের সামনে অবস্থান করে। এসময় ফোর্সটি ঘটনাস্থলে গেলে মোটরসাইকেল ২টি নিয়ে পালানোর চেষ্টাকালে সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্সের সহায়তায় ২টি ভারতীয় মোটরসাইকেল সহ আসামীদের আটক করেন। এসময় তাদের সঙ্গীরা পালিয়ে যায়।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে ধৃত ২ আসামী আসামীদদের মোটরসাইকেল ২টির কাগজপত্র দেখাতে বললে তারা কোন বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামীরা উপরোক্ত নাম ঠিকানা প্রকাশ সহ পলাতক আসামীদের নাম ঠিকানা প্রকাশ করে এবং আটককৃত মোটরসাইকেল ২টি পলাতক ও অজ্ঞাতনামা আসামীদের সহযোগিতায় বাংলাদেশ সরকারের শুল্ক ফাঁকি দিয়া চোরাইপথে অবৈধ ভাবে ভারত হইতে বাংলাদেশে এনেছে মর্মে স্বীকার করে।

আসামী আরিছ আহমদ এর হেফাজত হইতে ১টি নাম্বারবিহীন নীল রংয়ের YAMAHA R-15 মোটরসাইকেল, যাহার ইঞ্জিন নং-G3N4E0033091 চেসিস নং-ME1RG671BL0057557 যাহার মূল্য অনুমান ৪,৫০,০০০/-টাকা এবং আসামী ইমন আহমদ এর হেফাজত হইতে ১টি নাম্বারবিহীন কালো রংয়ের TVS Stryker মোটরসাইকেল, যাহার ইঞ্জিন নং-N5010809, চেসিস নং-PS625BF49L6K26326 যাহার মূল্য অনুমান ১,৫০,০০০/-টাকা উদ্ধার পূর্বক পর্যাপ্ত বৈদ্যুতিক ও টর্চ লাইটের আলোতে এসআই মো. মফিজুর রহমান জব্দতালিকা মূলে জব্দ করেন।

পরবর্তীতে এসআই মো. মফিজুর রহমান ধৃত আসামী ও জব্দকৃত আলামত সহ থানায় হাজির হইয়া এজাহার দায়ের করিলে এয়ারপোর্ট থানার মামলা নং-১২, তাং-০৭/০৮/২০২১খ্রিঃ, ধারা- The special power Act 1974, section 25B/25D রুজু হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহানগর পুলিশের মুখপাত্র (মিডিয়া) বি এম আশরাফ উল্ল্যাহ তাহের।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •