• ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৩ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

আলোচিত পকেটমার পপির ছেলে কিশোর গ্যাংয়ের অন্তর বেপরোয়া, নিরব ভূমিকায় প্রশাসন

sylhetnewspaper.com
প্রকাশিত এপ্রিল ১৪, ২০২১
আলোচিত পকেটমার পপির ছেলে কিশোর গ্যাংয়ের অন্তর বেপরোয়া, নিরব ভূমিকায় প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সিলেটের আলোচিত পকেটমার ও ছিনতাই জগতের ভয়ংকর নারী পপির ছেলে অন্তরসহ অজ্ঞাত ১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলার জন্য শাহপরান (র:) মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন আহত রনির বোন সিমা বেগম। সোমবার সন্ধ্যায় সিমা এই অভিযোগ দাখিল করেন। রনি উপশহরের সৈয়দানীবাদের আরজু মিয়ার কলোনীর নুরুল আমিনের ছেলে। লিখিত অভিযোগে উপশহরের এইচ ব্লকের আউয়াল মিয়ার ছেলে ও আলোচিত পপির ছেলে অন্তরকে প্রধান আসামী করা হয়।

এদিকে, সোমবার রাতে আলোচিত পকেটমার ও ছিনতাই জগতের ভয়ংকর নারী পপি ও তার সহযোগী কালি বেগম আহত রনিকে দেখতে যায় তার বাসায়। এসময় পপি ও কালি তাদের মামলায় না যাবার জন্য হুমকিও দেন। হুমকি প্রসঙ্গে রনির বোন সিমার বরাত দিয়ে জানা গেছে, পপি তাদের বলেছে-মামলা দিয়ে কি হবে। এরকম অহরহ মামলা আমাদের বিরুদ্ধে। প্রশাসন আমার ছেলেকে কিছুই করবে না। এরকম দু’চারটা র‍্যাব-পুলিশ আমার পকেটে রয়েছে! মামলায় না যাওয়াটাই তুমাদের জন্য ভালো। আমরা বিষয়টি বসে শেষ করি। বিষয়টি নিয়ে আতঙ্কে আছে রনির পরিবার। তারা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

প্রসঙ্গত, শনিবার রাত ১০টার দিকে নগরীর উপশহর এলাকার স্প্রিং টাওয়ারের সামনে ব্যাটারি চালিত রিকশা চালক রনি (২২)-কে বেধড়ক পিটিয়ে রক্তাক্ত করে অন্তর ও তার দলবল। এই সময়ে অন্তরের সাথে ছিলো সুমন, নুরু, জাবেদ, মন্ডলসহ প্রায় ১৫ কিশোর। রনির উপার্জিত টাকা নেয়ার এক পর্যায়ে সে তার পকেট থেকে ছুরি বের করে ছুরি দিয়ে আঘাত করে তার ডান চোখে। টাকা, মোবাইল ফোন নেবার পরে রক্তাক্ত অবস্থায় সেখানে ফেলে অন্তররা পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয়রা রিকশা চালক রনিকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়! এসএমপির শাহপরাণ (র) থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন